Breaking News

কাজী নজরুল ইসলাম

আজকে আমরা আলোচনা করব কাজী নজরুল ইসলাম কে নিয়ে । তাকে নিয়ে বিস্তারিত ছন্দে ছন্দে তুলে ধরার চেষ্ঠা করব।

চলুন শুরু করা যাক ,

    কাজী নজরুল ইসলাম ২৪ মে ১৮৯৯ সালে (১১ জ্যেষ্ঠ ১৩০৬ বঙ্গাব্দে) পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান জেলার আসানসোল মহকুমার চুরুলিয়া গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম কাজী ফকির আহমেদ মাতার নাম জাহেদা খাতুন। তাকে বিদ্রোহী কবি বলা হয়। স্বাধীনতার পর ২৪ মে ১৯৭২ সালে তিনি প্রথমে ঢাকা আসেন এবং ১৮ ফেব্রয়ারি ১৯৭৬ সালে তাকে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব প্রদান করা হয়।  ২৯ আগস্ট ১৯৭৬ সালে (১২ ভাদ্র ১৩৮৩ বঙ্গাব্দে) তিনি ঢাকা ইন্তেকাল করেন।                                                

কাজী নজরুল ইসলামের সংক্ষিপ্ত জীবনী, কাজী নজরুল ইসলামের বিদ্রোহী কবিতা, কাজী নজরুল ইসলামের প্রথম কাব্যগ্রন্থ, কাজী নজরুল ইসলামের প্রথম উপন্যাস, কাজী নজরুল ইসলামের গান, কাজী নজরুল ইসলামের কাব্যগ্রন্থ pdf, কাজী নজরুল ইসলামের উক্তি, কাজী নজরুল ইসলাম ছবি, কাজী নজরুল ইসলাম প্রমিলা দেবি, কাজী নজরুল ইসলামের ছদ্মনাম কি,
কাজী নজরুল ইসলাম

প্রথম রচনাঃ

উপন্যাস –    বাঁধনহারা

নাটক –       ঝিলিমিলি

গল্প-          হেনা

প্রবন্ধ –       তুর্কী মহিলার গোমটা খোলা

কাব্য –       অগ্নিবীণা

কবিতা –     মুক্তি।

কাব্যগ্রন্থঃ-

  বিদ্রোহ প্রধান কাব্য প্রেম প্রধান কাব্য

  বিদ্রোহ প্রধান কাব্য মনে রাখুন-

নজরুল অগ্নিবীণা ও বিষের বাঁশি বাজিয়ে ভাঙ্গার গান গেয়ে সাম্যবাদী সর্বহারা মানুষদের ফণিমনসা জিঞ্জির সন্ধ্যা প্রলয়শিখা শিখালো।  তা দেখে সঞ্চিতা মরুভাস্করে ঝর তুললো। 

প্রেম প্রধান কাব্য মনে রাখুন-

নজরুল প্রমিলার প্রেমে পরে দোলনচাঁপা ছায়ানট চক্রবাক কাব্য লিখে সিন্ধু হিন্দোল ও পুবের হাওয়া গেলেন।

     উপন্যাসঃ-

            উপন্যাস                     প্রধান চরিত্র

মৃত্যুক্ষুধা (১৯৩০) আনসার,মেঝবৌ, রুবি

বাঁধনহারা (১৯২৭) নুরুল হুদা,মাহবুবা

কুহেলিকা (১৯৩১) জাহাঙ্গীর, তাহমিনা,চম্পা।

    উপন্যাস মনে রাখুন-

নজরুলের মৃত্যুক্ষুধা বাধঁনহারা হয়ে কুহেলিকা গেল।

নাটক

রচিত নাটকঃ- রচিত প্রবন্ধঃ-

ঝিলিমিলি

আলেয়া 

মধুমালা

পুতুলের বিয়ে।

বাসন্তিকা

বনের বেদে রুদ্রমঙ্গল

যুগ-বাণী

দুর্দিনের যাত্রী

রাজবন্দীর জবানবন্দী

ধূমকেতু।

নাটক মনে রাখুন

ঝিলিমিলি শাড়ী পরে আলেয়া মধুমালাকে নিয়ে পুতুলের বিয়েতে গেল।

প্রবন্ধ মনে রাখুন

নজরুলের রুদ্রমঙ্গল যুগ-বাণী ও ধূমকেতু প্রবন্ধের চেয়ে রাজবন্দীর জবানবন্দী প্রবন্ধ গুলো উত্তম।                                                          

গান  ও স্বরলিপির বই

নজরুল গীতি

স্বরলিপি

সুরসাকী

বুলবুল

চোখের চাতক

গুলবাগিচায়

গীতি শতদল।

শিশুতোষ কাব্য                         

ঝিঙ্গেফুল                                      

সাত ভাই চম্পা । 

গল্প গ্রন্থঃ-

ব্যথার দান—গল্প আছে ৬ টি।

রিক্তের বেদন– গল্প আছে ৮ টি।

শিউলিমালা– গল্প আছে ৪ টি।

মনে রাখুন

নজরুল গীতি কি যে স্বরলিপি সুরসাকী গো। বুলবুল গীতি শতদল নিয়ে চোখের চাতক পেলে গুলবাগিচায় বসে শুনলো।

সম্পাদিত পত্রিকা

  ধূমকেতু (১৯২২)

  লাঙ্গল (১৯২৫)

  দৈনিক নবযুগ (১৯২০)

ব্রিটিশ সরকার কর্তৃক নিষিদ্ধ গ্রন্থ সমূহ

 অগ্নিবীণা

 বিষের বাঁশি

 ভাঙ্গার গান

প্রলয়শিখা

 যুগবাণী।

পুরস্কার/খেতাব

জগত্তারিণী স্বর্ণপদক-১৯৪৫ সালে কলকাতা বিশ^বিদ্যালয় প্রদান করে।

পদ্মভূষণ-১৯৬০ সালে ভারত সরকার প্রদান করে।

ডি.লিট ডিগ্রি-১৯৭৪ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যায় প্রদান করে।

একুশে পদক-১৯৭৬ সালে বাংলাদেশ সরকার প্রদান করে।

কাজী নজরুল ইসলাম সম্পর্কিত তথ্যকণিকা

কাজী নজরুলের প্রথম প্রকাশিত লেখা ‘বাউন্ডলের আত্মকাহিনী’ । এটি মে-১৯১৯ সালে সওগাত পত্রিকায় প্রকাশিত হয়।

প্রলয়শিখা গ্রন্থটি রচনার জন্য কবির ছয় মাসের কারাদন্ড হয়।

কাজী নচরুল ইসলাম মাত্র বাইশ বছর সাহিত্য রচনা করেন।

তিনি বাংলাদেশের রণসঙ্গীতের রচয়িতা। এটি তার সন্ধ্যা কাব্যের অন্তর্গত।

রবীন্দ্রনাথ তার “বসন্ত” গীতিনাট্য কাজী নজরুলকে উৎসর্গ করেন ২২ জানুয়ারি ১৯২৩ সালে।

বাধঁনহারা কাজী নজরুলে কি ধরনের রচনা—উপন্যাস। (৩৯তম বিসিএস)

কাজী নজরুল ইসলামের প্রথম প্রকাশিত লেখা কোনটি–বাঊন্ডুলের আত্মকাহিনী।

কাজী নজরুল ইসলাম সম্পাদিত পত্রিকা—ধূমকেতু।

‘তুর্কি মহিলার ঘোমটা খোলা’ কোন কবির রচনা–কাজী নজরুল ইসলাম।

‘বিষের বাঁশি’-কাব্যটি কে রচনা করেন–কাজী নজরুল ইসলাম।

কোনটি ঠিক—সিন্দো হিন্দোল (কাব্য)

ধূমকেতু কোন কবির ছদ্মনাম– কাজী নজরুল ইসলাম।

কাজী নজরুল ইসলামকে জাতীয় কবি ঘোষণা করা হয় ১৯৭৪ সালে।

কাজী নজরুল ইসলামের নামের সাথে ধূমকেতু কোন ধরণের প্রকাশনা-পত্রিকা।

কাজী নজরুল ইসলাম কত সালে সাহিত্যে একুশে পদক পান–১৯৭৬ সালে।

বাংলাদেশের রণসংগীতের রচয়িতা- কাজী নজরুল ইসলাম।

অগ্নিবীণা কাব্যের প্রথম কবিতা-প্রলয়োল্লাস।

কাজী নজরুল ইসলাম তাঁর কোন কবিতার জন্য কারাবরণ করেন-আনন্দময়ীর আগমনে।

দারিদ্র কবিতাটি নজরুল ইসলামের কাব্যের—সিন্ধু হিন্দুল।

দুর্গম গিরি কান্তার মুর দুস্তর পারাপার-গানটির রচয়িতা- কাজী নজরুল ইসলাম

সঞ্চিতা কোন কবির সংকোলন- কাজী নজরুল ইসলাম

রমজেন ঐ রোযার শেষে এলো খুশির ঈদ গানটির রচয়িতা– কাজী নজরুল ইসলাম

গাহি সাম্যের গান ধরণীর হাতে দিল যারা ফসলের ফরমান- কাজী নজরুল ইসলাম

কাজী নজরুল ইসলাম

About Admin

আপনি এই ওয়েব সাইটের মাধ্যমে বিসিএস সকল টপিক অনুযায়ী পোষ্ট পাবেন । যা আপনার চাকুরি পরীক্ষায় অনেক টা কাজে আসবে। বিসিএস ক্যাডার রিভিউ ও তাদের মতামত পেতে আমাদের ওয়েব সাইটেই ভিজিট করতে পারেন। আপনি বিসিএস এর সকল বই পাবেন।

Leave a Reply